সাংবাদিকদের বললেন ড. কামাল ‘নির্বাচনে আপনাদের পাহারা দিতে হবে

0
28
নির্বাচনে সাংবাদিকদের পাহারা দিতে হবে: ড. কামাল হোসেন

জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার আহ্বায়ক ও গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন বলেছেন- গণতন্ত্রকে কার্যকর করতে দেশের ১৬ কোটি মানুষ ঐক্যবদ্ধ আছে। দেশে কোনও অরাজকতা হলে তারা তা রুখে দাঁড়াবে। আগামী নির্বাচনকে সফল করতে হলে আপনাদেরকেও (সাংবাদিকদের) পাহারা দিতে হবে। দেশের মানুষ যেন নির্ভয়ে ভোট দিতে পারে। জনগণের স্বপ্ন যেন বাস্তবে রূপান্তরিত হয়।রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবে শনিবার বিকেলে যুক্তফ্রন্ট ও জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়া আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে নিজেদের দাবি দাওয়া উপস্থাপন করেন ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বাধীন জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়া ও ডা. এ কি এম বদরুদ্দোজা চৌধুরীর নেতৃত্বাধীন যুক্তফ্রন্ট। সংগঠনটি তাদের ৫ দফা দাবি ও ৯টি লক্ষ্য ঘোষণা করে। তবে ডা. এ কিউ এম বদরুদ্দোজ্জা চৌধুরী অনুষ্ঠানে উপস্থিত হওয়ার কথা থাকলেও তিনি হঠাৎ অসুস্থ হওয়ার কারণে তিনি উপস্থিত থাকতে পারেননি। জাতীয় শহীদ মিনারে তাদের এই ঘোষণা দেয়ার কথা থাকলেও সেখানে তাদের অনুষ্ঠান করতে না দেয়ায় পরে জাতীয় প্রেস ক্লাবে তারা এই ঘোষণা দেন

[X]

সংবিধান প্রণেতা ড. কামাল এসময় আরও বলেন- সমাজে যে ত্রাসের রাজত্ব কায়েম হয়েছে তা থেকে মানুষ মুক্তি চায়। আর একমাত্র সুষ্ঠু নির্বাচনই পারে জনগণের ক্ষমতা জনগণকে ফিরিয়ে দিতে। খুন, হত্যা, দুর্নীতি থেকে মানুষ মু্ক্তি চায়। আর এই মুক্তি আন্দোলনে শরিক হতেই আমরা ঐক্য প্রক্রিয়া চালিয়ে যাচ্ছি।কোটা সংস্কারের আন্দোলনের উদাহরণ টেনে ড. কামাল হোসেন আরও বলেন- আমরা কোটার তরুণদের কাছ থেকে আন্দোলনের রূপ ধারণ করতে পারি। কোটা সংস্কারের দাবি শতভাগ সঠিক। অথচ সরকার শিক্ষার্থীদের এমন যৌক্তিক দাবির সঙ্গে বিরোধিতা করছে। মেধাবী শিক্ষার্থীদের ওপর পুলিশ-ছাত্রলীগ মিলে হামলা করছে। তরুণ শিক্ষার্থীরা হাল ছাড়েনি। তারা আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছে। আমরা তাদের কাছ থেকে আন্দোলন শিখতে পারি। নিরাপদ সড়কের দাবিতে কোমলমতি শিক্ষার্থীরা যে আন্দোলন করলো, তাও রাজনৈতিক দলগুলোর জন্য বিশেষ শিক্ষা।ড. কামাল আরও বলেন- আগামী সংসদ নির্বাচন সুষ্ঠু করার লক্ষ্যে পাড়ায় পাড়ায় ঐক্য গড়ে তুলুন। সময় এসেছে পরিবর্তনের। সমতার ভিত্তিতে কল্যাণমূলক রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা করতে হলে এখনই ঐক্য প্রক্রিয়া শক্তিশালী করতে হবে।এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, বাংলাদশের জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জাসদের) এর নেতা আ.স.ম আব্দুর রব, নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না প্রমুখ।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY