রংপুরে স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগরের কারন দেখুন

0
3

রোববার সকালে উপজেলার কুমেদপুরে চাল ব্যবসায়ী মোস্তাক আহমেদের বাড়ি থেকে তার স্ত্রী মুনতারা বেগমের (৩৫) লাশ উদ্ধার করে বলে পীরগঞ্জ থানার ওসি রেজউল করিম জানিয়েছেন।

এ ঘটনায় মৃত গৃহবধূর বড়ভাই টুলু মিয়া বাদী হয়ে মোস্তাক আহমেদের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত পরিচয় আরও ৩-৪ জনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা করেছেন। ঘটনার পর থেকে মোস্তাক পলাতক রয়েছেন।

মোস্তাকের পরিবার ও স্থানীয়দের বরাত দিয়ে ওসি রেজাউল জানান, স্থানীয় দুই সন্তানের জনক মতলুবারের সঙ্গে পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়েছিলেন মুনতারা। এ নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে প্রায়ই ঝগড়া-ঝাটি হতো। স্ত্রীকে প্রায় সময় মারধরও করতেন মোস্তাক।

[X]

“শুক্রবার সন্ধ্যায় মোস্তাক ব্যবসায়িক কাজে পাশের বাজারে যান। এ সুযোগে মতলুবার মোস্তাকের বাড়ি আসে। বাড়ি ফিরে তিনি স্ত্রীকে মতলুবারের সঙ্গে আপত্তিকর অবস্থায় দেখতে পান।

“এরপর মতলুবার পালিয়ে গেলেও স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে বাকবিতণ্ডা হয়। এক পর্যায়ে মোস্তাকের বেদম মারপিটে মুনতারা ঘটনাস্থলে মারা যান।”

এক যুগ আগে মোস্তাকের সঙ্গে মুনতারার বিয়ে হয়। তাদের কোনো সন্তান নেই।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পীরগঞ্জ থানার এসআই আমিনুল ইসলাম বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “মুনতারার হাত, গলা, থুতনি ও হাঁটুতে জখমের চিহ্ন রয়েছে।”

লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে বলে এসআই আমিনুল জানান।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY